Wednesday, August 28, 2019

রাজ্যে দুই ধরনের রেশন কার্ড চালু করার নির্দেশ।



 রেশন কার্ডে সামঞ্জস্য চান মুখ্যমন্ত্রী। কার্ডের জন্য নাম নথিভুক্ত করার প্রক্রিয়া শুরুর আগে সর্বদল বৈঠক করতে চলেছেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। আগামী ৯ থেকে ২৬ সেপ্টেম্বর সব জেলায় বিডিও অফিসে শুরু হবে রেশন কার্ডের জন্য নাম নথিভুক্তকরণের প্রক্রিয়া। গরিব মানুষের কাছে সুলভে খাদ্য সামগ্রী পৌছনোর অন্যতম মাধ্যম রেশন ব্যবস্থা।

রেশন কার্ড থাকলেও, অনেকে রেশন নেন না। সামগ্রী নষ্ট হয়, থাকে দুর্নীতির আশঙ্কাও। এবার রেশন ব্যবস্থাকে সুসংহত করার ওপর জোর দিলেন মুখ্যমন্ত্রী। জোর দিলেন রেশন ব্যবস্থায় সামঞ্জস্যে। আগামী ৯ থেকে ২৬ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সব জেলায় বিডিও অফিসে রেশন কার্ডের নাম নথিভুক্ত হবে।  মুখ্যমন্ত্রীর মতে, সকলের জন্য রেশন কার্ড জরুরি। তবে রেশন কার্ড বিলিতে সামঞ্জস্যও আনতে হবে। তিনি বলেন, 'খাদ্যমন্ত্রীকে বলবো একটা সর্বদল বৈঠক ডাকো। মানুষ গরিব, তার কোনও পার্টি হয় না।

তাই এই রেশন কার্ডের বিষয়ে সর্বদল ডেকে সবার পরামর্শ নাও।' অনেকে রেশন কার্ড শুধু পরিচয়পত্র হিসেবেই ব্যবহার করেন। এবিষয়ে নাগরিক পঞ্জির প্রসঙ্গ টেনে এনেছেন মমতা। বলেন,'বহুক্ষেত্রে যাদের দরকার, তাঁরা রেশন পাচ্ছেন না। এই বিষয়গুলি খতিয়ে দেখতেই সর্বদল বৈঠক ডাকার নির্দেশ দেন তিনি। মুখ্যমন্ত্রীর নির্দেশের পর শুরু হয় সর্বদল বৈঠক নিয়ে তত্‍পরতা। খাদ্যশস্য এবং খাদ্যশস্য নয় এমন সামগ্রীর জন্য আলাদা রেশন কার্ড তৈরির বিষয়ে ভাবনাচিন্তা করছে খাদ্য দফতর। এবিষয়ে সর্বদল বৈঠকে আলোচনা হতে পারে। এছাড়াও গরিব মানুষ রেশন পাচ্ছেন কিনা, উদ্বৃত্ত রেশন নিয়ে দুর্নীতির আশঙ্কার মতো বিষয়ও উঠতে পারে বৈঠকে। চলতি সপ্তাহেই রেশন কার্ড নিয়ে রয়েছে সর্বদল বৈঠকের সম্ভাবনা। 

No comments:

Post a Comment