Wednesday, September 4, 2019

ভারতীয়দের জন্য গর্বের দিন, রাশিয়াতে গর্ড অফ অনার দেওয়া হল মোদিকে।



  দুই দিনের সফরে রাশিয়ায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। বড় শিল্পের ক্ষেত্রে ভারত রাশিয়া জোটের মাধ্যমে দুই দেশের সম্পর্ক দৃঢ় করাই এই সফরের মূল উদ্দেশ্য। আর সেই লক্ষ্য়েই বুধবার রাশিয়ার জাহাজ নির্মাণ শিল্পের নির্মীয়মান কমপ্লেক্স ঘুরে দেখলেন মোদী। আর তাঁর সেই সফরে সঙ্গী হলেন রুশ প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন।  এদিন একসঙ্গে ছোট জাহাজে চড়ে ভেজদা জাহাজ নির্মাণ কমপ্লেক্সের দিকে রওনা দেন দুই রাষ্ট্রনেতা।

তারপর একসঙ্গে ভেজদার জাহাজ নির্মাণ শিল্প ঘুরেও দেখলেন তাঁরা। বুধবার দুপুরেই সেই ছবি টুইট করলেন প্রধানমন্ত্রী।  বুধবার সকালেই রাশিয়ার ভ্লাদিভস্তক বিমানবন্দরে মোদীর বিমান অবতরণ করে। সেখানে তাঁকে গার্ড অফ অনার দেওয়া হয়। তারপরেই তাঁকে উষ্ণ অভ্যর্তনা জানান রুশ প্রেসিডেন্ট। করমর্দন ও আলিঙ্গনের মাধ্যমে মোদীকে স্বাগত জানান পুতিন। এরপরেই পরিকল্পনামাফিক  ভেজদা জাহাজ নির্মাণ কমপ্লেক্সের উদ্দেশে রওনা দেন মোদী-পুতিন।


 ছোট জাহাজে চড়ে তাঁরা যাত্রা শুরু করেন। তাঁদের সঙ্গে ছিলেন রুশ সরকারের একাধিক উচ্চপদস্থ ব্যক্তিরা। ভেজদা যাওয়ার সময়ে জাহাজে বেশ কিছুক্ষণ আলোচনা করতে দেখা যায় দুই বিশ্বনেতাকে। ভেজদা জাহাজ নির্মাণ কমপ্লেক্সে পৌঁছে পুতিনের সঙ্গে গোটা এলাকা ঘুরে দেখেন মোদী। জাহাজশিল্পের সঙ্গে জড়িত কর্মীদের সঙ্গেও কথা বলেন তিনি।  ভেজদা জাহাজ নির্মাণ কমপ্লেক্সে অতিরিক্ত ভারী পণ্য় বহনে সক্ষম ভেসেল তৈরী করা হবে বলে জানা গিয়েছে। জাহাজ মেরামতের কাজও হবে এইখানে। তাছাড়া বন্দর ও জাহাজের সঙ্গে জড়িত বিভিন্ন যন্ত্রপাতিও এখানে প্রস্তুত করা হবে বলে জানা গিয়েছে। রুশ সংবাদসংস্থা সূত্রে খবর, এখানে তৈরী বড় জাহাজের মাধ্যমে ভারতসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশে জ্বালানী রপ্তানি করা হবে।



 এদিন নরেন্দ্র মোদী বলেন, "রাশিয়া ভারতের বহুদিনের  বন্ধু ও বিশ্বাসযোগ্য সঙ্গী। ভারতের সঙ্গে জোট শক্তিশালী করার জন্য রাশিয়া বরাবরই হাত বাড়িয়ে দিয়েছে।" রুশ প্রধানের উদ্দেশে মোদী বলেন, "ফোন করেও আমি বিভিন্ন ইস্যুতে আলোচনা করেছি, কখনই ইতস্তত বোধ করিনি।"  রাশিয়ার সর্বোচ্চ নাগরিক সম্মান দেওয়া হবে নরেন্দ্র মোদীকে। সেই নিয়েও নিজের কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন নমো। তিনি বলেন, "রাশিয়ার জনগণের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। এই সম্মান দুই দেশের বন্ধুত্বের প্রতীক। এটি সম্মান ১৩০ কোটি ভারতীর।" আগামিকাল ইস্টার্ন ইকোনমিক ফোরামে যোগ দেওয়ার কথা মোদীর। সেখানে বিভিন্ন দেশের সঙ্গে ভারতের অর্থনৈতিক সম্পর্ক দৃঢ় করতে আলোচনায় যোগ দেবেন মোদী।   

No comments:

Post a Comment