Monday, September 30, 2019

আগামীকালই মুকুলের হাত ধরে বিজেপিতে যোগদান করছেন তৃণমূলের প্রাক্তন মেয়ের।



 শেষপর্যন্ত দলত্যাগ-ই করছেন সব্যসাচী দত্ত। আগামিকালই বিজেপিতে যোগ দিচ্ছেন বিধাননগরের প্রাক্তন মেয়র। ঘনিষ্ঠ সূত্রে পাওয়া খবর, আগামিকাল সকাল ১১টায় বিধাননগরে একটি মিছিলে যোগ দেবেন সব্যসাচী দত্ত। তারপরই তিনি গেরুয়া শিবিরে যোগ দেবেন। মিছিল করে নেতাজি ইন্ডোর স্টেডিয়ামে গিয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহের হাত থেকে বিজেপির পতাকা গ্রহণ করবেন সব্যসাচী।



দেবীপক্ষের শুরুতেই দল বদলে রাজনৈতিক কেরিয়ারে নিজের নতুন জার্নি শুরু করছেন সব্যসাচী দত্ত।  সব্যসাচী দত্তের বিজেপিতে যোগদানের জল্পনার শুরু লোকসভা নির্বাচনের আগে থেকেই। বিদ্যুভবনে গিয়ে বকেয়া আদায়ের দাবিতে বিদ্যুতকর্মীদের বিক্ষোভকে নেতৃত্ব দেওয়ার ঘটনা থেকে শুরু। সব্যসাচীর ভূমিকায় চূড়ান্ত ক্ষুূব্ধ শীর্ষ নেতৃত্ব। এরপরই আসে সব্যসাচী দত্তের বাড়িতে বিজেপি নেতা মুকুল রায়ের 'লুচি-আলুরদম' পর্ব। সেই ঘটনাকে ঘিরে তুঙ্গে ওঠে সব্যসাচীর দলবদলের জল্পনা।



যদিও তখনকার মতো সব্যসাচীকে 'বুঝিয়েসুঝিয়ে' পরিস্থিতি সামাল দেয় তৃণমূল শীর্ষ নেতৃত্ব। কিন্তু 'ফাটল' জোড়া লাগেনি। ধীরে ধীরে দূরত্ব ক্রমশ বাড়ে। এরপরই বিধাননগর পুরনিগমের মেয়র পদে আসীন সব্যসাচী দত্তের বিরুদ্ধে একযোগে অনাস্থা আনেন কাউন্সিলররা। সেই জল গড়ায় কলকাতা হাইকোর্ট পর্যন্ত। আদালতে দু'পক্ষের দড়ি টানাটানিতে প্রাথমিকভাবে সবস্যচী দত্ত জিতে গেলেও, তারপরই আসে নাটকীয় মোড়। সব্যসাচী নিজেই বিধাননগর পুরনিগমের মেয়র পদ থেকে ইস্তফা দেন। আর সেইদিন ফের 'ছোট ভাই সব্যসাচীকে দুঃসময়ে পরামর্শ দিতে' পৌঁছে যান 'দাদা' মুকুল রায়।

একের পর এক ঘটনায় সব্যসাচীর তৃণমূল ছেড়ে বিজেপিতে যোগদানের পথে যেন একটা একটা করে ইট পাতা হচ্ছিল। যারমধ্যে নবতম সংযোজন সব্যসাচী দত্তের গণেশ পুজোয় বিজেপি রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ, মুকুল রায়ের 'উজ্জ্বল' উপস্থিতি। গণেশ পুজোর প্যান্ডেলেও ছিল 'পদ্মের' ছায়া। প্যান্ডেল শীর্ষের নকশা তৈরি হয়েছিল পদ্মের আদলে।

No comments:

Post a Comment